Designated Reference Institute for Chemical Measurements, BCSIR Ministry of Science and Technology, Government of the People's Republic of Bangladesh
Text size A A A
Color C C C C
Last updated: 24th November 2019

২০১৫ এশিয়া প্যাসিফিক মেট্রোলজি প্রোগ্রাম ডেভেলপমেণ্ট ইকোনমি এ্যাওয়ার্ড পেলেন ড. মালা খান


Publish Date: 2015-11-22

২০১৫ এশিয়া প্যাসিফিক মেট্রোলজি প্রোগ্রাম ডেভেলপমেণ্ট ইকোনমি এ্যাওয়ার্ড পেলেন ড. মালা খান

২০১৫ এশিয়া প্যাসিফিক মেট্রোলজি প্রোগ্রাম ডেভেলপমেণ্ট ইকোনমি এ্যাওয়ার্ড পেলেন ডিআরআইসিএম -এর বিজ্ঞানী ড. মালা খান। কেমিক্যাল মেট্রোলজি তথা রাসায়নিক পরিমাপ বিজ্ঞান সংক্রান্ত দেশের প্রথম রেফারেন্স ইনস্টিটিউট-ডেজিগনেটেড রেফারেন্স ইনস্টিটিউট ফর কেমিক্যাল মেজারমেণ্টস (ডি আর আই সি এম) প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বাংলাদেশে কেমিক্যাল মেট্রোলজির প্রয়োজনীয় অবকাঠামো সৃষ্টিতে অসাধারণ অবদানের জন্য বিসিএসআইআর-এর আওতাধীন ডিআরআইসিএম-এর প্রতিষ্ঠাতা-বিজ্ঞানী ড. মালা খানকে ২০১৫ সালের “এশিয়া প্যাসিফিক মেট্রোলজি প্রোগ্রাম ডেভেলপমেণ্ট ইকোনমি এ্যাওয়ার্ড (এ পি এম পি ডেন এ্যাওয়ার্ড)” প্রদান করেছে কেমিক্যাল মেট্রোলজি সংক্রান্ত এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সর্বোচ্চ আঞ্চলিক সংস্থা এশিয়া-প্যাসিফিক মেট্রোলজি প্রোগ্রাম (এ পি এম পি)।

গণচীনের রাজধানী বেইজিং-এ অনুষ্ঠিত এপিএমপি’র ৩১তম সাধারণ অধিবেশন চলাকালে গত ৪ নভেম্বর ২০১৫ তারিখে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের খ্যাতনামা বিজ্ঞানীদের উপস্থিতিতে এপিএমপি’র চেয়ারপারসন ড. পিটার ফিস্ক উক্ত এ্যাওয়ার্ড তুলে দেন ড. মালা খানের হাতে। এ এ্যাওয়ার্ড ড. খানের জন্যেতো বটেই, দেশের জন্যেও বিরল সম্মানের। উল্লেখ্য যে, ড. খানই প্রথম বিজ্ঞানী যিনি, বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে, বিজ্ঞানের একটি নতুন ক্ষেত্র হিশেবে কেমিক্যাল মেট্রোলজি তথা রাসায়নিক পরিমাপ বিজ্ঞানকে দেশে পরিচিত ও প্রতিষ্ঠিত করেছেন। তাঁর অক্লান্ত পরিশ্রমে, বিসিএসআইআর এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায়, প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ডিআরআইসিএম।

২০১২ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করেছেন এ প্রতিষ্ঠানটি। প্রতিষ্ঠার অল্প সময়ের মধ্যে ড. মালা খানের নিরলস প্রচেষ্টায় ডিআরআইসিএম লাভ করেছে পরিমাপ বিজ্ঞান সংক্রান্ত সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক সংস্থা- বিআইপিএম এবং এ বিষয়ক এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সর্বোচ্চ আঞ্চলিক সংস্থা- এপিএমপি’র সদস্যপদ।

ডিআরআইসিএম পারষ্পরিক সহযোগিতার সম্পর্ক স্থাপন করেছে যুক্তরাষ্ট্রের National Institute for Science & Technology (NIST), পর্তুগালের Portuguese Institute for Quality (IPQ), ভারতের National Physical Institute-Council of Scientific & Industrial Research India (NPL-CSIR,I), United Nations Industrial Development Organization (UNIDO), European Union (EU) প্রভৃতি গুরুত্বপূর্ণ বিদেশী ও আন্তর্জাতিক সংস্থার সাথে।

এ কারনে ডিআরআইসিএম-এর পরীক্ষণ সেবা ও অন্যান্য সেবার মান আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্য হয়েছে। এর ফলে যে সকল পরীক্ষণ এতদিন প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয় করে বিদেশ থেকে করানো হতো এখন সেই সকল সুবিধা ডিআরআইসিএম-এ সৃষ্টি হয়েছে এবং বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হচ্ছে।

ইদানিং বেশ কয়েকটি বিদেশী সংস্থা/ প্রতিষ্ঠান (যেমন Occucare, USA; BASF, Germany) ডিআরআইসিএম থেকে বিভিন্ন সেবা গ্রহণ করছে ফলে বৈদেশিক মুদ্রা আয়ের সুযোগও তৈরী হয়েছে। সর্বোপরি, আন্তর্জাতিক মানের সেবা প্রদান করার সক্ষমতা অর্জন করায় দেশীয় বিভিন্ন সংস্থা/ প্রতিষ্ঠান ডিআরআইসিএম থেকে পরীক্ষণ/ প্রশিক্ষণ/ ক্যালিব্রেশন/ পরামর্শক সেবা গ্রহণ করছে।

সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে ডিআরআইসিএম-এর পরীক্ষণ সেবা আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্য হওয়ায় বাংলদেশী পণ্যের বিদেশে রপ্তানির ক্ষেত্রে অশুল্ক বাধা অতিক্রম করার পথ সুগম হয়েছে। ক্যালিব্রেশন সেবাসহ প্রশিক্ষণ ও অন্যান্য সেবার মাধ্যমে দেশীয় বিভিন্ন টেষ্টিং ল্যাবরেটরি (ডায়াগনষ্টিক ল্যাবরেটরিসহ) সেবার মান উন্নীতকরণে সহায়তা করার সামর্থ্য ডিআরআইসিএম-এর সৃষ্টি হয়েছে।

২০১৫ সালের “এশিয়া প্যাসিফিক মেট্রোলজি প্রোগ্রাম ডেভেলপমেণ্ট ইকোনমি এ্যাওয়ার্ড (এ পি এম পি ডেন এ্যাওয়ার্ড)”- এ ভূষিত ড. মালা খান BIPM ও APMP এর বিভিন্ন কনসালটেটিভ কমিটি সহ একাধিক দেশীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থায় সদস্য হিসেবে কাজ করছেন।

সূত্র: নিরাপদ নিউজ ২২ নভেম্বর ২০১৫


Share with :

Facebook Facebook